Newspapergiant

World newspaper directory

Day: January 26, 2022

আমিরাতে কমলো করোনা আক্রান্তের সংখ্যা

উপসাগরীয় দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতে একদিনে ২৫০৪ জনের দেহে কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়েছে।

একই দিনে সুস্থ হয়েছেন ৯৬৫ জন, আর মৃ;ত্যু হয়েছে ৫ জনের। ।

২৫ জানুয়ারি মঙ্গলবার আমিরাতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

ঐ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এ সময় ৫ লক্ষ ৬৩ হাজার ৩৩০ জনের কোভিড-১৯ এর পরীক্ষা হয়েছে।

আমিরাতে এ পর্যন্ত ১২২ মিলিয়নেরও বেশি পিসিআর টেস্ট করা হয়েছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্যমতে,সংযুক্ত আরব আমিরাতে সর্বমোট আক্রান্ত হয়েছেন ৮ লাখ ৩০ হাজার ৮৩২ জন, মা;রা গেছেন ২ হাজার ২২৪ জন এবং মোট সুস্থ হয়েছেন ৭ লাখ ৭০ হাজার ৪২৩ জন।

গত ১৫ জানুয়ারি আক্রান্ত হয়েছিল ৩১১৬ জন।

২২ জানুয়ারি ৩০২০ জন। এরপর কিছুটা কমতি লক্ষ করা যাচ্ছে।

গতকাল আক্রান্ত ছিল ২৬২৯ জন। আর আজ দাড়ালো ২৫০৪ জনে।

করোনা সুরক্ষায় সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছে আমিরাত স্বাস্থ্য বিভাগ।

আবুধাবিতে সরকারি কর্মচারীদের অবশ্যই টিকা দিতে হবে এবং গত ১০ জানুয়ারি থেকে কর্মক্ষেত্রে প্রবেশের জন্য করোনাভাইরাস বুস্টার টিকা লাগছে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতে ২০১৯ সালের ২৯ জানুয়ারি সর্বপ্রথম করোনা শনাক্ত হয়।

মাঝে করোনা পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হয়েছিল। কিন্তু নতুন করে আবারো করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় চিন্তা বাড়ছে প্রবাসীদের।

এদিকে, দেশটির রাজধানী আবুধাবিতে অন্যান্য স্টেট থেকে প্রবেশ করতে হলে যারা টিকা গ্রহণ করেছেন তাদের বেলায় আল-হোসেন অ্যাপে গ্রিন সিগন্যাল থাকতে হবে।

আর যারা করোনার টিকা গ্রহণ করেননি তাদের বেলায় পূর্ববর্তী ৯৬ ঘণ্টার মধ্যে করা কোভিড-১৯ পরীক্ষার নেগেটিভ সার্টিফিকেট দেখাতে হবে।

এছাড়া অন্য দেশ থেকে ভ্রমণকারীদের পিসিআর পরীক্ষা করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট দেখাতে হবে, যা প্রস্থানের সর্বোচ্চ ৪৮ ঘণ্টা আগে করা।

এছাড়া আবুধাবি ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে পৌঁছানোর পরে একটি পিসিআর পরীক্ষা করতে হবে।

Share Button

মাহাথির মোহাম্মদের সর্বশেষ অবস্থা নিয়ে যা জানালেন মেয়ে

মালয়েশিয়ার সাবেক প্রবীন প্রধানমন্ত্রী ড. মাহাথির মোহাম্মদ জনসাধারণকে তার স্বাস্থ্য নিয়ে চিন্তা না করার কথা জানিযেছেন। আজ ড. মাহাথির মোহাম্মদের মেয়ে মেরিনা মাহাথির এই কথা জানান।

এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় লাংকাউই এমপির অবস্থার উন্নতি হয়েছে এবং তিনি ন্যাশনাল হার্ট ইনস্টিটিউটে (আইজেএন) চিকিৎসা চালিয়ে যাবেন।

“তার ক্ষুধা বেড়েছে এবং তিনি আইজেএন-এ তার পাশে থাকা পরিবারের সদস্যদের সাথে মজা করতে পেরেছিলেন। জনসাধারণ এমনকি বিদেশি নেতাদের কাছ থেকেও তাকে শুভেচ্ছা জানানো হয়েছিল।

“মাহাথির এবং আমাদের পরিবার মুগ্ধ এবং তার দ্রুত সুস্থতার জন্য প্রার্থনা করার জন্য সকলকে ধন্যবাদ । মেরিনা যোগ করেছেন, যে আইজেএন এখনও পরিবারের সদস্যদের ছাড়া কাউকে পেজুয়াং চেয়ারম্যানের সাথে দেখা করার অনুমতি দিচ্ছে না।

মাহাথির বর্তমানে আইজেএন এর করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) ওয়ার্ডে রয়েছেন। ডিসেম্বরের পর থেকে এটি আইজেএন-এ তার তৃতীয় ভর্তি।

ডিসেম্বরে তার সম্পূর্ণ মেডিকেল চেক আপ করা হয়েছিল এবং আরও পর্যবেক্ষণের জন্য তাকে ছয় দিনের জন্য রাখা হয়েছিল। এই মাসের শুরুতে, তিনি একটি নির্বাচনী পদ্ধতির জন্য আইজেএন -এ ফিরে আসেন। মাহাথিরের হার্টের সমস্যার ইতিহাস রয়েছে, ১৯৮৯ এবং ২০০৭ সালে দুটি হার্ট বাইপাস সার্জারি করা হয়েছিল।

Share Button

আমিরাতে ১৪৫০০ দিরহাম বেতনের চাকরি দেয়ার প্রতিবেদন অস্বীকার করেছে কতৃপক্ষ

সংযুক্ত আরব আমিরাতের ন্যাশনাল অ্যাম্বুলেন্স এমিরাতি উচ্চ বিদ্যালয়ের স্নাতকদের কাজের অভিজ্ঞতা ছাড়াই প্যারামেডিক হওয়ার জন্য প্রশিক্ষণ দিয়ে ১৫০ টি চাকরি দেওয়ার বিষয়ে প্রতিবেদন অস্বীকার করেছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচারিত মিডিয়া রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে যে কর্তৃপক্ষের উদ্যোগের অংশ হিসাবে বেতন ১৪৫০০ থেকে শুরু হয়।

তারা বলেছে এই খবরটি ভুয়া।

এক বিবৃতিতে, ন্যাশনাল অ্যাম্বুলেন্স জরুরী চিকিৎসা পরিষেবাগুলিতে স্বীকৃত ডিগ্রী সহ আমিরাতীদের আকৃষ্ট করার এবং ভাড়া করার প্রচেষ্টার উপর জোর দিয়েছে।

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ন্যাশনাল অ্যাম্বুলেন্স বিশেষায়িত কর্তৃপক্ষ এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতায়, তরুণ আমিরাতীদেরকে প্যারামেডিক হওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় একাডেমিক এবং পেশাগত দক্ষতার সাথে সজ্জিত করার জন্য আমিরাতাইজেশন উদ্যোগ চালু করে চলেছে।

এটি যোগ্য এবং প্রশিক্ষিত জাতীয় ক্যাডার প্রস্তুত করার জন্য প্রতিষ্ঠানগুলির সাথে চুক্তি করেছে, তাদের একাডেমিক এবং বাস্তব অভিজ্ঞতা প্রদান করে।

এই প্রার্থীদের স্নাতকের পরে নিয়োগ করা হয়, শিক্ষার্থীদের জন্য উপলব্ধ স্পনসরশিপ প্রোগ্রামের মাধ্যমে।

এই প্রতিষ্ঠানগুলিতে যারা নথিভুক্ত হয়েছে তাদের নিয়োগ করা হয়, কিছু শর্ত এবং প্রক্রিয়া সাপেক্ষে যা প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে “সম্পূর্ণ ভিন্ন”।

Share Button

১ বছরের জন্য বহিষ্কৃত হলেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সেই ছাত্রী

বাংলাদেশের একটি অন্যতম এবং একমাত্র পূর্ণাঙ্গ আবাসিক পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে। ঢাকার অদূরে সাভার এলাকায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়টি অবস্থিত।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) প্রসাশন সিনিয়র ছাত্রকে শারীরিক ভাবে লাঞ্ছনায় অভিযুক্ত নৃবিজ্ঞান বিভাগের ৪৬ ব্যাচের শিক্ষার্থী সুমাইয়া বিনতে ইকরামকে ১ বছরের জন্য বহিষ্কার করেছে।

সেইসাথে তার সহযোগী একই বিভাগ ও ব্যাচের আনিকা তাবাসসুম মিমকেও ছয় মাসের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) রাতে অনুষ্ঠিত জরুরি সিন্ডিকেট সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

সিন্ডিকেট সদস্য ও কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. মুহম্মদ হানিফ আলী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গতকাল সোমবার রাত সাড়ে আটটার দিকে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বহিষ্কৃত সুমাইয়া বিনতে ইকরামের বিরু;দ্ধে এক ছাত্রকে শারী;রিকভাবে আঘাত করার অভিযোগ উঠে। ক্যাম্পাসের বটতলায় এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী তানিয়া আক্তার এর সূত্রে জানা যায়, রাত ৮ টার দিকে সুমাইয়া বিনতে ইকরাম ও তার বান্ধবী আনিকা তাবাসসুম মিম ভুক্তভোগী ও তার বন্ধুদের সাথে রাস্তায় সাইড দেয়াকে কেন্দ্র দুর্ব্যবহার করে। এসময় পথচারী অন্যান্য শিক্ষার্থীরা তাকে থামানোর চেষ্টা করলে সুমাইয়া বিনতে ইকরাম তাদের সাথেও দুর্ব্যবহার করেন।

ঘটনার একপর্যায়ে রাত দশটার দিকে একটি খাবারের হোটেলের সামনে ভিকটিম সুমাইয়া বিনতে ইকরামের ছেলেবন্ধুর সাথে কথা বলার সময় সুমাইয়া হঠাৎ করে ভিকটিমকে কয়েকটি চড় মারেন।

এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে অন্যান্য শিক্ষার্থীরা তার উপর ক্ষুব্ধ হয়। রাত সাড়ে ১১ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অফিসে উভয় পক্ষই লিখিত বক্তব্য জমা দেয়। শিক্ষার্থীরা এসময় অভিযুক্তর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করে।

আজ বিকেল ৫টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিসিপ্লিনারি বডির মিটিংয়ে অভিযুক্তদের বহিষ্কারের সুপারিশ করা হয় যা পরর্বতীতে সিন্ডিকেট সভায় পাশ হয়।

Share Button

হাসপাতালে ভর্তি নায়িকা শাবনাজ

ঢাকাই ছবির এক সময়ের জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা শাবনাজ কোভিট -১৯ এ আ;ক্রান্ত হয়েছেন। গত রোববার তেইশ জানুয়ারী তার স্বামী চিত্রনায়ক নাঈম খবরটি নিশ্চিত করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে।

তাদের উভয়ের নাম দিয়ে ফেসবুক পেজে এ খবরটি জানিয়ে দেওয়া হয় সবাইকে। নাঈম লিখেছিলেন, ‘শাবনাজ করোনায় আক্রান্ত। আপনারা সবাই তার সুস্থতার জন্য দোয়া করবেন।

শাবনাজ এখন বাসায় সবার থেকে আলাদা আছে। শাবনাজের জ্বর ছিল।

তাই তখনই পরীক্ষা করে দেখি কোভিড পজিটিভ এসেছে এবং ডাক্তারের পরামর্শ মেনে বাসায় চিকিৎসা নিচ্ছে।

আপনাদের সবাইকে অনুরোধ করছি সাবধানে থাকবেন এবং অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করবেন। আল্লাহ শাবনাজকে সুস্থতা দান করুন, আমিন।’

তবে হঠাৎ বেশি অসুস্থ হয়ে পড়ায় গতকাল সোমবার (২৪ জানুয়ারি) তাকে বাসা থেকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গত ১৫ দিনে দুইবার করোনা পরীক্ষা করানো হয়েছিল শাবনাজের। প্রথমে নেগেটিভ ফল এলেও দ্বিতীয়বার পজিটিভ ফল আসে বলে জানান চিত্রনায়ক নাঈম।

তবে আপাতত ভয় পাওয়ার কোনো কারণ নেই। স্বাভাবিক ভাবেই নিশ্বাস নিচ্ছেন শাবনাজ। ডাক্তারের পরামর্শেই তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। হাসপাতালে কিছুদিন চিকিৎসা নেওয়ার পর অতি অল্প সময়ে সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরে আসবেন বলে জানিয়েছেন চিত্রনায়ক নাঈম।

Share Button

মালয়েশিয়ায় বিমান ৩০ হাজার টাকার ভাড়ায় গুনতে হচ্ছে ১ লাখ

বাংলাদেশ থেকে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে প্লেন ভাড়া বেড়েছে কয়েক গুন ।

সিন্ডিকেটের কারণে মালয়েশিয়ার বিমান ভাড়া ৩০ হাজার টাকার বিপরীতে এক লাখ টাকা গুণতে হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে রিক্রুটিং এজেন্সিজ ঐক্য পরিষদ।

সোমবার (২৪ জানুয়ারি) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাগর-রুনী মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে রিক্রুটিং এজেন্সিজ ঐক্য পরিষদ।

এতে নেতৃবৃন্দ বলেন, পাশের দেশগুলো থেকে মালয়েশিয়া যেতে বিমান ভাড়া ৩০ হাজার টাকা হলেও বাংলাদেশ থেকে লাগছে ৯০ হাজার থেকে এক লাখ টাকা। অতীতে যারা ১০ এজেন্সি সিন্ডিকেট তৈরি করেছিল তারাই এই ভাড়া নৈরাজ্যে জড়িত।

সঙ্গে যুক্ত আছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। তারা ভাড়া না কমানোর জন্যই অন্যরা বাড়া বাড়িয়ে দিয়েছে। এতে আর্থিক সংকট ও ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন রেমিটেন্স যোদ্ধারা।

এই প্রস্তাবনা বাতিল চেয়ে নেতারা বলেন, একটি দেশকে কোনোভাবেই অন্য কোনো দেশ সিদ্ধান্ত দিতে পারে না।

সংবাদ সম্মেলনে রিক্রুটিং এজেন্সিজ ঐক্য পরিষদের মহাসচিব এম টিপু সুলতান বলেন, মালয়েশিয়া সরকার কর্তৃক বাংলাদেশি ২৫ এজেন্সি সিন্ডিকেটের মাধ্যমে কর্মী প্রেরণের প্রস্তাবনা অযৌক্তিক।

শ্রমিকদের হয়রানি বন্ধে ডাটা ব্যাংকের মাধ্যমে কর্মী প্রেরণের সিদ্ধান্ত দ্রুত বাস্তবায়ন করে কম খরচে কর্মী প্রেরণের দাবি জানায় সংগঠনটি। টিকিটের দাম বাড়ার পেছনে বিমান ও গ্রুপ সিন্ডিকেট রয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তারা।

সমস্যা নিরসনে বেশ কিছু দাবি জানান তারা। সেগুলো হলো- বিমানকে কম খরচে যাত্রী পরিবহন, শাহজালাল ছাড়া অন্যান্য বিমানবন্দর থেকে মধ্যপ্রাচ্যে ফ্লাইট পরিচালনা, ওপেন স্কাই ঘোষণা করে অন্যান্য বিমানকে বিমানবন্দর ব্যবহার করার সুযোগ দেওয়া এবং অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়ার সিন্ডিকেটকে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া।

Share Button
Newspapergiant © 2014 Frontier Theme